নবীজির পদাঙ্ক অনুসরণ

৳ 175৳ 250

In stock

সালমান আল-ফারিসি (রাঃ) বলেন,
“কেউ যদি স্বাচ্ছন্দ্যের সময় আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলার কাছে দু’আ করতে অভ্যস্ত থাকে, তাহলে সে কোনো বিপদে পড়ে দু’আ করলে ফেরেশতারা বলেন, ‘এ তো একটি পরিচিত কণ্ঠ!’ তারপর তাঁরা তার জন্য সুপারিশ করেন। আর সে যদি স্বাচ্ছন্দ্যের সময় আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলার কাছে দু’আ করতে অভ্যস্ত না থাকে, তাহলে সে কোনো বিপদে পড়ে দু’আ করলে ফেরেশতারা বলেন, ‘এ তো একটি অপরিচিত কণ্ঠ!’ তাঁরা তার জন্য সুপারিশ করেন না।”
.
পাথর দিয়ে গুহার মুখ বন্ধ হয়ে আটকে পড়া তিন ব্যক্তির হাদীসও এখানে উল্লেখ্য। বিপদে পড়ে তাঁরা এমন নেক আমলের উসিলা দিয়ে দু’আ করেছিলেন, যেগুলো তাঁরা সুখ-স্বাচ্ছন্দ্যের সময়ে করেছিলেন। পিতামাতার প্রতি সদাচরণ, অশ্লীল কাজ পরিত্যাগ আর আমানত রক্ষা করা। (বুখারি : ২২১৫-২২৭২-২৩৩৩-৩৪৬৫-৫৯৭৪ এবং মুসলিম : ২৭৪৩; ইবনু উমার (রাঃ) থেকে বর্ণিত। )
.
এটি জানা কথা যে, স্বাচ্ছন্দ্যের সময় বান্দা আল্লাহকে স্মরণ করলে তার দুর্দশার সময় আল্লাহ তাকে স্মরণ করবেন। জীবনে যত বিপদ আসে তার মধ্যে সবচেয়ে বড় বিপদ হলো মৃত্যু। তার মৃত্যু-পরবর্তী গন্তব্য যদি ভালো না হয়, তাহলে মৃত্যুর পরের ঘাঁটিগুলো এরচেয়ে ভয়াবহ হবে। আর গন্তব্য ভালো হলে মৃত্যুই হবে সবচেয়ে হালকা বিপদ। তাই এই বিপদের সময় আসার আগেই মানুষকে এর জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে ও আমল তৈরি করতে হবে। কেউ জানে না কোন দিন বা কোন রাতে তার মৃত্যু চলে আসবে।
আরও জানতে, বইটি পড়ুন।

তুলনা করুন

এইগুলো একসাথে কিনুন

সালমান আল-ফারিসি (রাঃ) বলেন,
“কেউ যদি স্বাচ্ছন্দ্যের সময় আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলার কাছে দু’আ করতে অভ্যস্ত থাকে, তাহলে সে কোনো বিপদে পড়ে দু’আ করলে ফেরেশতারা বলেন, ‘এ তো একটি পরিচিত কণ্ঠ!’ তারপর তাঁরা তার জন্য সুপারিশ করেন। আর সে যদি স্বাচ্ছন্দ্যের সময় আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলার কাছে দু’আ করতে অভ্যস্ত না থাকে, তাহলে সে কোনো বিপদে পড়ে দু’আ করলে ফেরেশতারা বলেন, ‘এ তো একটি অপরিচিত কণ্ঠ!’ তাঁরা তার জন্য সুপারিশ করেন না।”
.
পাথর দিয়ে গুহার মুখ বন্ধ হয়ে আটকে পড়া তিন ব্যক্তির হাদীসও এখানে উল্লেখ্য। বিপদে পড়ে তাঁরা এমন নেক আমলের উসিলা দিয়ে দু’আ করেছিলেন, যেগুলো তাঁরা সুখ-স্বাচ্ছন্দ্যের সময়ে করেছিলেন। পিতামাতার প্রতি সদাচরণ, অশ্লীল কাজ পরিত্যাগ আর আমানত রক্ষা করা। (বুখারি : ২২১৫-২২৭২-২৩৩৩-৩৪৬৫-৫৯৭৪ এবং মুসলিম : ২৭৪৩; ইবনু উমার (রাঃ) থেকে বর্ণিত। )
.
এটি জানা কথা যে, স্বাচ্ছন্দ্যের সময় বান্দা আল্লাহকে স্মরণ করলে তার দুর্দশার সময় আল্লাহ তাকে স্মরণ করবেন। জীবনে যত বিপদ আসে তার মধ্যে সবচেয়ে বড় বিপদ হলো মৃত্যু। তার মৃত্যু-পরবর্তী গন্তব্য যদি ভালো না হয়, তাহলে মৃত্যুর পরের ঘাঁটিগুলো এরচেয়ে ভয়াবহ হবে। আর গন্তব্য ভালো হলে মৃত্যুই হবে সবচেয়ে হালকা বিপদ। তাই এই বিপদের সময় আসার আগেই মানুষকে এর জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে ও আমল তৈরি করতে হবে। কেউ জানে না কোন দিন বা কোন রাতে তার মৃত্যু চলে আসবে।
.
মৃত্যুর সময় নেক আমলের কথা স্মরণ করতে পারলে রবের প্রতি বান্দার সুধারণা তীব্র হয়, মৃত্যুযন্ত্রণা লাঘব হয় ও আশার সঞ্চার হয়।
.
একজন সালাফ মোটামুটি এমন একটি কথা বলেছিলেন, “তাঁরা নেক আমলের একটি ভান্ডার প্রস্তুত রাখা ওয়াজিব মনে করতেন, যাতে মৃত্যুযন্ত্রণা লাঘব হয়।”
.
কোনো নেক আমল–যেমন হাজ্জ, জিহাদ, সিয়াম ইত্যাদি‒করার পরপরই মারা যাওয়াকে তাঁরা অত্যন্ত ফযিলতপূর্ণ বলে বিশ্বাস করতেন।
..
নাখাই (রহঃ) বলেছেন, “মৃত্যুশয্যায় শায়িত ব্যক্তিকে তার নেক আমলের কথা স্মরণ করিয়ে দেওয়াকে তাঁরা প্রশংসনীয় বলে জানতেন। এতে করে রবের প্রতি বান্দার সুধারণা তৈরি হয়।”

আবু আব্দুর রহমান আস-সুলামি (রহঃ) তাঁর মৃত্যুশয্যায় বলেছিলেন, “আমি কী করে আমার প্রতিপালকের প্রতি সুধারণা না রাখতে পারি, অথচ আমি আশিটি রমাদান যাবৎ সিয়াম পালন করেছি?” (আবু নুয়াইম : খণ্ড ৪, পৃষ্ঠা ১৯২ )
.
আবু বাকর ইবনু আইয়্যাশ (রহঃ)-এর মৃত্যু উপস্থিত হলে তাঁর আশপাশের মানুষেরা কান্না করতে লাগলেন। তিনি বললেন, “কান্না কোরো না। আমি এই মুসাল্লায় তেরো হাজার বার কুরআন সম্পূর্ণ তিলাওয়াত করেছি।”
.
বর্ণিত আছে যে, তিনি তাঁর সন্তানকে বলেছিলেন, “তোমার কি মনে হয় আল্লাহ তোমার পিতার জীবনের চল্লিশটি বছর নষ্ট করে দেবেন, যার প্রতিটি রাতে সে কুরআন সম্পূর্ণ তিলাওয়াত করেছে?” (খাতিব, তারিখ : খণ্ড ১৪, পৃষ্ঠা ৩৮৩ )
.
একজন সালাফ তাঁর মৃত্যুশয্যায় তাঁর পুত্রকে পাশে বসে কাঁদতে দেখলেন। তিনি বললেন, “কেঁদো না। তোমার পিতা কখনো কোনো অশ্লীল কাজ করেননি।”
.
আদাম ইবনু আবু ইয়্যাস (রহঃ) মৃত্যুশয্যায় কাপড় জড়ানো অবস্থায়ই সম্পূর্ণ কুরআন তিলাওয়াত করেন। তিনি বললেন, “আপনার প্রতি আমার ভালোবাসার উসিলায় এই ভয়াবহ সময়ে আমার প্রতি সদয় হোন। এই মহাদিবসের প্রস্তুতি নেওয়ার সময় সারাক্ষণ আমার সকল আশা-ভরসা আপনার প্রতি ছিল। লা- ইলাহা ইল্লাল্লাহ!” এতটুকু বলে তিনি শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেন। আল্লাহ তাঁকে রহম করুন। (খাতিব, তারিখ : খণ্ড ৭, পৃষ্ঠা ২৯ )
.
দুনিয়াবিরাগী সাধক আব্দুস সামাদ (রহঃ) তাঁর মৃত্যুশয্যায় বলেছিলেন, “হে আমার প্রভু, এই সময়টির জন্যই আমি আপনাকে আমার গুপ্ত ধনভান্ডার হিসেবে রেখেছি। এই সময়টির জন্যই আমি আপনার হেফাজত করেছি। আপনার ব্যাপারে আমার সুধারণাকে বাস্তবায়ন করুন।” (ইবনুল জাওযি, সিফাতুস সাফওয়াহ : খণ্ড ২, পৃষ্ঠা ২৭২)

Ready to ship in 1-3 business day from Bangladesh


 

Shipping Policy

আমরা ২-৪দিনের মধ্যে ডেলিভারি দিয়ে থাকি। তবে কোন কারণ বশত ডেলিভারি হতে পারে। সারাদেশে ডেলিভারি চার্জ ৫০ টাকা। ঢাকার বাহিরে আপনাকে অগ্রিম মূল্য পরিশোধ করতে হবে। ১৫০০ টাকার বেশি অর্ডার করলে ডেলিভারি ফ্রি।


 

Refund Policy

অগ্রিম মূল্য ফেতর দেয়ার ক্ষেত্রে আমরা সর্বোচ্চ ৫ কর্ম দিবস সময় নিয়ে থাকি। ঐ সময়ের মধ্যে বিস্তারিত তদারকি করে আপনার অগ্রিম মূল্য ফেতর দেয়া হবে।

Additional information

লেখক

ইবনু রজব হাম্বলী রাহি.

অনুবাদক/সংকলক

সীরাত অনুবাদক টিম

পাতা

১৮০

ভাষা

বাংলা

প্রকাশকাল

প্রথম প্রকাশ, ২০১৮

Only logged in customers who have purchased this product may leave a review.

Reviews

There are no reviews yet.

Vendor Information

  • Store Name: কিতাব সমাহার
  • Vendor: Ruhul Amin
  • Address: C4, Level 3, 32/2 Mirpur Road
    Science Laboratory
    Dhaka
    Dhaka
    1205
  • No ratings found yet!

বিষয় নির্বাচন করুন

নবীজির পদাঙ্ক অনুসরণ

৳ 175৳ 250

Add to Cart